রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনো খেতে আসেন নি pdf বই ডাউনলোড

75

রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনো খেতে আসেন নি pdf বই ডাউনলোড। গন্ধটা যেনো আষ্টেপৃষ্ঠে জড়িয়ে ধরলো তাকে! ট্যাক্সিক্যাবের দরজা খুলে মাটিতে পা রাখার সাথে সাথে টের পেলো বাতাসে ভেসে বেড়াচ্ছে অদ্ভূত একটি গন্ধ। এ জীবনে নেয়া যতো গন্ধ আছে তার মদ্যে এটি একেবারেই অজ্ঞাত। এর মধ্যে যে সম্মোহনী ক্ষমতা রয়েছে সেটাও টের পেলো খুব দ্রুত।

টানা চার-পাঁচ ঘন্টা ক্যাবে করে ভ্রমণ করার পর এমনিতেই খিদেয় পেট চৌ-চৌ করছিলো, প্রলুদ্ধকরর গন্ধে সেটা যেন বিস্ফোরণের মতো ছড়িয়ে পড়লো এবার। তার থেকে মাত্র বিশ গজ দূরে, রাস্তার পাশে রেস্টুরেন্টটি দেখতে পেয়ে সানগ্লাস খুলে ভালো করে তাকালো।

সাইনবোডর্ডে স্পষ্ট দেখতে পাচ্ছে অদ্ভূত আর অপ্রচলিত নামটি। দুই ঠোটে চেপে রাখা জ্বলন্ত সিগারেটে জোরে টান দিলো সে। পা বাড়ানোর আগে ট্যাক্সি ক্যাব্রে দিকে ফিরে তাকালো। ড্রাইভার জানালা দিয়ে মাথা বরে করে রেখেছে।

তার সাথে চোখে চোখ পড়তেই মাথা নেড়ে সায় দিলো লোকটি। তাকে চলে যাবার ইশারা করতেই হুস করে শব্দ তুলে ট্যাক্সিক্যাবটি চলে গেলো। তার চোখের সামনে যে রেস্টুরেন্টটি দাঁড়িয়ে আছে সেটা গর্বসহকারেই জানান দিচ্ছেঃ

রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনও খেতে আসেন নি!
একদম সত্যি কথা। আমিও কখনও এখানে আসতাম না, যদি…
বুক ভরে গন্ধটা নিয়ে সামনের দিকে পা বাড়ালো।

মহাসড়কের পাশে চমৎকার একটি বাংলো বাড়ির মতো একতলার এই রেস্টুরেন্টটির সামনে লম্বা বারান্দা, সেই বারান্দার উপরে সবুজ রঙ করা টিনের ছাউনি। বড় বড় ফ্রেঞ্চ জানালা আর নক্সা করা বিশাল একটি কাঠের দরজা। এক নজরেই জায়গাটা মানসপটে স্থান করে নেবে।

আরও দেখুন রবিন্দ্রনাথ এখানে কখনো আসেনি সিরিজের বইঃ

রাস্তার পাশে এমন চমৎকার ছিমছাম রেস্টুরেন্ট খুব কমই আছে। মহাসড়কের পাশে যেসব রেস্টুরেন্ট থাকে সেগুলো মূলত যাত্রিবাহী বাসের স্টপেজ হিসেবে কাজ করে। বড়বড় বাস সার্ভিস কোম্পানী নিজেরাই কিছু রেস্টুরেন্টের মালিক। ওগুলো সামনে বিশাল একটি খালি জায়গা রাখা হয় বাস-কোচ রাখার জন্য।

কিন্তু এই অদ্ভূত রেস্টুরেন্টটি সে-রকম নয়। এর সামনে যে খোলা জায়গাটি আছে সেখানে বড়জোর দশ-বারোটি প্রাইভেট কার রাখার ব্যবস্থা রয়েছে।

সম্ভবত দুরপাল্লার কোনো বাস-কোচ এখানে রাখা হয় না। তাহলে কোথায় রাখা হয়? জবাবটা পেয়ে গেলো রেস্টুরেন্টের বামদিকে।

ছিমছাম রেস্টুরেন্টের এক-দেড়শ গজ দূরে একটি প্রেট্টলপাম্প। সেখানে অনেকগুলো বাস-ট্রাক কোচ দাঁড়িয়ে আছে।

চারপাশে তাকিয়ে রেস্টুরেন্টের দিকে নজর দিলো আবার। এ মুহুর্তে সামনের প্রাঙ্গনে সাদা রঙের একটি প্রাইভেটকার আর কালো রঙের মাইক্রোবাস ছাড়া কিছু নেই।

দুপুর গড়িয়ে গড়িয়ে হামাগুড়ি দিয়ে বিকেলে দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। সবকিছু যেনো ঝিমিয়ে পড়েছে এখানে। মহাসড়কটিও অলসভাবে পড়ে আছে। অনেক্ষণ পর পর দুয়েকটা বাস-ট্রাক যাচ্ছে-আসছে তার উপর দিয়ে।

নিচে রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনো খেতে আসেন নি pdf বই এর স্ক্রিনশট ও ডাউনলোড লিংক দেওয়া হলোঃ

রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনো খেতে আসেন নি pdf

প্রকাশকঃ   বাতিঘর প্রকাশনী
বইয়ের ধরণঃ উপন্যাস
বইয়ের সাইজঃ 12.1 MB
প্রকাশ সালঃ 2015
বইয়ের লেখকঃ মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন
অনুবাদঃ  


ডাউনলোড সার্ভার-১ঃ Download Now


বই ডাউনলোড করতে কোন সমস্যা হলে অথবা নতুন কোন বইয়ের জন্য রিকুয়েস্ট করতে আমাদের Facebook Page অথবা Facebook Group এ জয়েন করুন