পথের পাঁচালি pdf বই ডাউনলোড

25

পথের পাঁচালি pdf বই ডাউনলোড । নিশ্চিন্দিপুর গ্রামের একেবারে উত্তরপ্রান্তে হরিহর রায়ের ক্ষুদ্র কোঠাবাড়ী । হরিহর সাধারণ অবস্থার গৃহস্থ, পৈতৃক আমলের সামান্য জমিজমার আয় ও দু-চার ঘর শিষ্য সেবকের বার্ষিকী প্রণামীর বন্দেবস্ত হইতে সাদাসিধাভাবে সংসার চালাইয়া থেকে ।

পূর্বদিন ছিল একাদশী । হরিহরের দূরসম্পর্কীয় দিদি ইন্দির ঠাকরুণ সকালবেলা ঘরের দাওয়ায় বসিয়া চালভাজার গুঁড়া জলখাবার খাইতেছে । হরিহরের ছয় বৎসরের মেয়েটি চুপ করিয়া পাশে বসিয়া আছে ও পাত্র হইতে তুলিবার পর হইতে মুখ পরিবার পুর্ব পর্যন্ত প্রতিমুঠা ভাজার গুঁড়ার গতি অত্যন্ত চাহিতেছে । দু-একবার কি বলি বলি করিয়াও যেন বলিতে পারিল না । ইন্দির ঠাকরুণ মুঠার পর মুঠা উঠাইয়া পাত্র নিঃশেষ করিয়া ফেলিয়া খুকীর দিকে চাহিয়া বলিল, ও মা, তোর জন্য দুটো রেখে দেলাম না ? ওই দ্যাখো!

মেয়েটি করুণ চোখে বলিল, তা হোক পিতি, তুই খা
দুটো পাকা বড় বীচে-কলার একটা হইতে আধখানা ভাঙ্গিয়া ইন্দির ঠাকরণ তাহার হাতে দিল । এবার খুকীর চোখ-মুখ উজ্জ্বল দেখাইল- সে পি সিমার হাত হইতে উপহার লইয়া মনোযোগের সহিত ধীরে ধীরে চুষিতে লগিল্।

ও ঘর হইতে তাহার মা ডাকিল, আবার ওখানে গিয়া ধন্না দিয়ে বসে আছে ? উঠে আয় ইদিকে । ইন্দির ঠাকুরণ বলিল, থাক বৌ- আমার কাছে বসে আছে, ওকিছু করছে না । থাক বসে, তবুও তাহার মা শাসনের সুরে বলিল, না, কেনই বা খাবার সময় ওরকম বসে থাকবে? ওসব আমি পছন্দ করি নে; চলে আয় বলচি উঠে।
খুকী ভয়ে উঠিয়া গেল।

আরও দেখুনঃ
প্রজাপতি pdf বই ডাউনলোড
রক্তসাধনা pdf বই ডাউনলোড

ইন্দির ঠাকরুণের সঙ্গে হরিহরের সম্পর্কটা বড় দুরের । মামার বাড়ীর সম্পর্কে কি রকমের বোন । হরিহর রায়ের পূর্বপুরুষের আদি বাড়ী ছিল পাশের গ্রামে যশড়া-বিষ্ণপুর । হরিহরের পিতা রামচাঁদ রায় মহাশয় অল্প-বয়সে প্রথমবার বিপত্নীক হইবার পরে অত্যন্ত ক্ষোভের সহিত লক্ষ্য করিলেন যে দ্বিতীয়বার তাঁহার বিবাহ দিবার দিকে পিতৃদেবের কোন লক্ষ্যই নাই ।

পথের পাঁচালী বই

বছরখানেক কোনরকমে চক্ষুলজ্জায় কাটাইয়া দেওয়ার পরও যখন পিতার সেদিকে কোন উদ্যম দেখা গেল না, তখন রামচাঁদ মরীয়া হইয়া প্রত্যরক্ষ ও পরোক্ষে নানারূপ অস্ত্র ব্যবহার করিতে বাধ্য হইলেন । দুপুরবেলা কোথাও কিছু নাই, সহজ মানুষ রামচাঁদ আহারাদি করিয়া বিছানায় ছটফট করিতেছেন!

কেহ নিকটে বসিয়া কি হইয়াছে জানিতে চাহিলে রামচাঁদ সুর ধরিতেন, তাঁহার আর কে আছে, কেই বা আর তাঁহাকে দেখিবে- এখন তাঁহার মাথা ধরিলেই বা কি , ইত্যাদি। ফলে এই নিশ্চিন্দিপুর গ্রামে রামচাঁদের দ্বিতীয় পক্ষের বিবাহ হয়, এবং বিবাহের অল্পদিন পরে পিতৃদেবের মৃত্যু হইলে যশড়া-বিষ্ণপুরের বাস উঠাইয়া রামচাঁদ স্থায়ীভাবে এখানেই বসবাস শুরু করেন।

ইহা তাঁহার অল্প বয়সের কথা -রামচাঁদ এ গ্রামে আসিবার পর শ।বশুরের যত্নে টোলে সংস্কৃত পড়িতে আরম্ভ করেন, এবং কালে এ অঞ্চলের মধ্যে ভাল পন্ডিত হইয়া উঠিয়া ছিলেন । তবে কোন বিষয়কর্ম কোনদিন তিনে করেন নাই, করার উপযুক্ত তিনি ছিলেন কিনা, সে বিষয়েও ঘোরতর সন্দেহের কারণ আছে । বৎসরের মধ্যে নয় মাস তাাঁহর স্ত্রী-পুত্র শ্বশুড়বাড়ীতে থাকিত।

আরও দেখুনঃ
প্রজাপতি pdf বই ডাউনলোড
প্রেমাতাল pdf বই ডাউনলোড

তিনি নিজে পাড়ার পতিমার মুখুয্যের পাশার আড্ডায় অধিকাংশ সময় কাটাইয়া দুইবেলা ভোজনের সময় শ্বশুরবাড়ী হাজির হইতেন মাত্র; যদি কেহ জিজ্ঞাসা করিত , পন্ডিতমশায়, বৌটা ছেলেটা আছে, আখেরাটা তো দেখতে হবে ? রামচাঁদ বলিতেন- কোন ভাবনা নেই ভায়া, ব্রজো চক্কোত্তির ধানের মারাই- এর তলা কুড়িয়ে খেলেও এখন ওদের দু-পুরুষ হেসে-খেলে কাটাবে। পরে তিনে ছক্কা ও পুঞ্জড়ির জোড় মিলাইলে ঘর ভাঙিতে পারিবেন, তাহার একমনে ভাবিতেন ।

নিচে পথের পাঁচালি pdf বই এর স্ক্রিনশট ও ডাউনলোড লিংক দেওয়া হলোঃ

পথের পাঁচালি pdf বই ডাউনলোড

প্রকাশকঃ 
বইয়ের ধরণঃ উপন্যাস
বইয়ের সাইজঃ 9.37 MB
প্রকাশ সালঃ 1929 ইং
বইয়ের লেখকঃ বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়


ডাউনলোড সার্ভার-১ঃ Download Now


বই ডাউনলোড করতে কোন সমস্যা হলে অথবা নতুন কোন বইয়ের জন্য রিকুয়েস্ট করতে আমাদের Facebook Page অথবা Facebook Group এ জয়েন করুন