অচিনপুর pdf বই ডাউনলোড

25

অচিনপুর pdf বই ডাউনলোড । মরবার পর কী হয়? আট-ন’ বছর বয়সে এর উত্তর জানবার ইচ্ছে হল। কোনো গূড় তত্ত্ব নিয়ে চিন্তার বয়স সেটি ছিল না, কিন্তু সত্যি সত্যি সেই সময়ে আমি মৃত্যুরহস্য নিয়ে ভাবিত হয়ে পড়েছিলাম।

সন্ধ্যাবেলা নবু মামাকে নিয়ে গা ধুতে গিয়েছি পুকুরে। চারিদিক ঝাপসা করে অন্ধকার নামছে। এমন সময়ে হটাঃ করেই আমার জানবার ইচ্ছে হল, মরবার পর কী হয়।

আমি ফিসফিস করে ডাকলাম, ‘নবু মামা, নবু মামা’। নবু মামাম সাঁতরে মুঝপুকুরে চলে গিয়েছিলেন। তিনি আমার কথা শুনতে পেলেন না।

আমি আবার ডাকলাম, ‘নবু মামা, রাত হয়ে যাচ্ছে’।
-আর একটু।
’ভয় লাগছে আমার।’

একা একা পাড়ে বসে থাকতে সত্যি আমার ভয় লাগছিল। নবু মামা উঠে আসতেই বললাম, ‘মরবার পর কী হয় মামা?’
-নবু মামা রেগে গিয়ে বললেন, ‘সন্ধ্যাবেলা কী বাজে কথা বলিস?’

নবু মামা ভীষণ ভীতু ছিলেন, আমার কথা শুনে তাঁর ভয় ধরে গেল। সে সন্ধ্যায় দু’জনে চুপি চুপি ফিঁরে চলেছি। রইসুদ্দিন চাচার কবরের পাশ দিয়ে আসবার সময় দেখি, সেখানে কে দু’টি ধূপকাঠি জ্বালিয়ে রেখে গেছে। দু’টি লিকলিকে ধোয়ার শিকা উড়ছে সেখান থেকে। ভয় পেয়ে নবু মামা আমার হাত চেপে ধরলেন।

শৈশবের এই অতি সামান্য ঘটনাটি আমার খুব স্পষ্ট মনে আছে। পরিণত বয়সে এ নিয়ে আমি অনেক ভেবেছি। ছোট একটি ছেলে মৃত্যুর কথা মনে করে একা কষ্ট পাচ্ছে।

আরও দেখুনঃ
আজ চিত্রার বিয়ে pdf বই ডাউনলোড
আজ দুপুরে তোমার নিমন্ত্রণ pdf বই ডাউনলোড

সত্যি তো, সামান্য কোনো ব্যাপার নিয়ে ভাববার মতো মানসিক প্রস্তুতিও যার নেই, সে কেন কবরে ধূপের শিখা দেখে আবেগে টলমল করবে? কেন সে একা একা চলে যাবে সোনাখালি? সোনাখালি খালের বাঁধান পুলের উপর বসে থাকতে থাকতে এক সময় তার কাঁদতে ইচ্ছে হবে?

আসলে আমি মানুষ হয়েছি অদ্ভূত পরিবেশে। প্রকান্ড একটি বাড়ির অগুনতি রহস্যময় কোঠা। বাড়ির পেছনে জড়াজড়ি করা বাঁশবন। দিনমানেই শেয়াল ডাকছে চারিদিকে। সন্ধ্যা হব-হব সময়ে বাঁশবনের এখানে-ওখানে জ্বলে উঠছে ভূতের আগুন। দোতলার বারান্দায় পা ছড়িয়ে বিচিত্র সুরে কোরআন পড়তে শুরু করেছে কানাবিবি।

নিচে অচিনপুর pdf বই এর স্ক্রিনশট ও ডাউনলোড লিংক দেওয়া হলোঃ

অচিনপুর pdf বই ডাউনলোড

প্রকাশকঃ 
বইয়ের ধরণঃ উপন্যাস
বইয়ের সাইজঃ 5.19 MB
প্রকাশ সালঃ ইং
বইয়ের লেখকঃ হুমায়ূন আহমেদ

ডাউনলোড সার্ভার-১ঃ Download Now

বই ডাউনলোড করতে কোন সমস্যা হলে অথবা নতুন কোন বইয়ের জন্য রিকুয়েস্ট করতে আমাদের Facebook Page অথবা Facebook Group এ জয়েন করুন